শীতলক্ষ্যা নদীতে অভিযান চালিয়ে ছয় নৌডাকাতকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-১

0
86
শেয়ার করে সকল কে জানিয়ে দিনঃ

বিপ্লব হাসান রূপগঞ্জ (নারায়নগঞ্জ) প্রতিনিধি : রূপগঞ্জ ও গাজীপুর সীমান্তবর্তী শীতলক্ষা নদীতে অভিযান চালিয়ে ছয়জন ডাকাতের সক্রিয় সদস্যকে গ্রেফতার করেছে রূপগঞ্জ পূর্বাচল র‌্যাব-১। ১৮ এপ্রিল বৃহস্পতিবার গভীর রাতে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে শীতলক্ষ্যা নদীতে অভিযান চালিয়ে তাদেরকে গ্রেফতার করা হয়।

এসময় তাদের সাথে থাকা দেশীয় অস্ত্র,নগদ টাকা, ব্যবহীত ৫টি মোবাইল, ১টি ট্রলার ও ইঞ্জিন চালিত নৌকা উদ্ধার করা হয়। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে নদীতে ডাকাতির ঘটনায় জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছে বলে জানায় র‌্যাব-১।

পূর্বাচল র‌্যাব-১ এর মেজর আব্দুল্লাহ আল মেহেদী এক প্রেস ব্রিফিংয়ে জানান, দীর্ঘদিন যাবৎ নারায়নগঞ্জের রূপগঞ্জ ও গাজীপুরের কালীগঞ্জ থানার সীমান্তবর্তী শীতলক্ষ্যা নদীর গুদারাঘাট এলাকায় একটি সংঘবদ্ধ ডাকাতদল ট্রলার ও নৌকাযোগে নদীতে চলাচলরত বালি,পাথর ও মালামাল পরিবহনকারী বিভিন্ন নৌযান এবং ড্রেজারে নিয়মিত ডাকাতির অভিযোগ পাওয়া যায়।

তারই ভিত্তিতে র‌্যাব-১ এ অঞ্চলে ব্যাপক গোয়েন্দা কার্যক্রম শুরু করে এবং ডাকাত দলের সক্রিয় সদস্যদের গ্রেফতারে জোর প্রচেষ্টা অব্যাহত রাখে।

এরই ধারাবাহিকতায় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে গতকাল গভীর রাতে র‌্যাব-১ অভিযান পরিচালনা করে ডাকাতির প্রাক্কালে ডাকাত দলের সক্রিয় সদস্য কালিগঞ্জ থানার দড়িসোম এলাকার দুলাল হোসেন ওরফে দুলুর ছেলে শাহিন হোসেন ওরফে শাহিন (৩০),একই এলাকার লিটন মিয়ার ছেলে সোহেল মিয়া(২৯), জাহাঙ্গীর কবিরের ছেলে উপল কবির(১৯),সবুজ মিয়ার ছেলে ফয়সাল(২০), পলাশ থানার ইসলামপাড়া গ্রামের দুলাল মিয়ার ছেলে সাদ্দাম হোসেন(২৮),ডাংগা কাজৈর গ্রামের সুলতান হোসেনের ছেলে খাইরুল ইসলাম(২৩)কে গ্রেফতার করে। এসময় ডাকাতদের ব্যবহৃত ১টি ট্রলার, ১টি ইঞ্জিন চালিত নৌকা,২টি বড় ছুড়ি,২টি রামদা,২টি চাপাতি ও ২টি চাকু উদ্ধার করা হয়। তাদের বিরুদ্ধে মামলার প্রস্তুতি চলছে।


শেয়ার করে সকল কে জানিয়ে দিনঃ