খুন করার অপরাধে সৌদি আরবে দুই ভারতীয়র শিরচ্ছেদ

0
33
শেয়ার করে সকল কে জানিয়ে দিনঃ

ক্রাইম অনুসন্ধান ডেস্ক : সৌদি আরবে খুন করার অপরাধে ভারতের পাঞ্জাবের দুই ব্যক্তিকে শিরশ্ছেদ করা হয়েছে। চলতি বছরের ২৮ ফেব্রুয়ারি সৌদি আরবে ওই দুই ভারতীয়র শিরচ্ছেদ করা হয়। দেশটির পররাষ্ট্রবিষয়ক মন্ত্রণালয় দুই ভারতীয়র শিরশ্ছেদের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

সৌদিতে বসবাসকারী অন্য এক ভারতীয়কে হত্যার অপরাধে তাদের দু’জনকে এই শাস্তি দেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছে ভারতীয় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। গত ২৮ ফেব্রুয়ারি পাঞ্জাবের লুথিয়ানার হারজিত সিং ও হোশিয়াপুরের সতীন্দ্র কুমারের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করার আগে সৌদি আরবে ভারতের দূতাবাসকে এ বিষয়ে জানানো হয়নি। দুই নাগরিককে রক্ষায় ব্যর্থতার জন্য পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সমালোচনা করে পাঞ্জাবের মুখমন্ত্রী এ ঘটনায় গভীর শোক প্রকাশ করেন।

সতীন্দ্রের স্ত্রী সীমা রানীকে ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, সৌদি রীতি অনুসারে মৃত্যু সনদ দেয়া হবে। তবে পরিবারের কাছে মরদেহ ফেরত দেয়া হবে না। সীমা রানী বলেন, গত ২ মার্চ সৌদি আরব থেকে কেউ তাকে ফোন করে জানায় তার স্বামীর মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হয়েছে। কিন্তু আনুষ্ঠানিকভাবে তাকে নিশ্চিত করা হয়নি এ তথ্য। ভারতের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে এসেও এ নিয়ে কোনো তথ্য পাননি বলে তিনি জানিয়েছেন।

জানা যায়, লুটের টাকা ভাগবাটোয়ারা নিয়ে দ্বন্দ্ব সৃষ্টি হয় হরজিৎ, সতীন্দ্র ও ইমামুদ্দিনের মধ্যে। ঝগড়ার এক পর্যায়ে খুন হয় ইমামুদ্দিন। এর কয়েকদিন পর হরজিৎ ও সতীন্দ্রকে মদ্যপ অবস্থায় গ্রেফতার করা হয়। ডিপোর্টেশনের জন্যে নথিপত্র তৈরি করার সময় জানা যায় তাদের হাতেই খুন হয়েছে ইমামুদ্দিন। ২০১৫ সালের ৯ ডিসেম্বর হত্যার অপরাধে গ্রেফতার করা হয় তাদের।


শেয়ার করে সকল কে জানিয়ে দিনঃ