স্প্যানিশ লিগে মেসির গোল উৎসব

0
4
শেয়ার করে সকল কে জানিয়ে দিনঃ


আলোর যুগ রিপোর্ট: স্প্যানিশ ফুটবলে সাধারণত জায়ান্ট কিলার হিসেবেই পরিচিত রিয়াল সোসিয়েদাদ। বিশেষ করে লা লিগার অন্যতম সফল ক্লাব বার্সেলোনার, রিয়াল সোসিয়েদাদের মাঠে খেলতে গিয়ে খুব একটা সুবিধা করতে পারে না। তবে এবার বদলে গেল আগের সব ইতিহাস, বড় জয় নিয়েই বাড়ি ফিরেছে বার্সেলোনা।

রোববার রাতে বার্সেলোনার হয়ে সর্বোচ্চ ম্যাচ খেলার রেকর্ড গড়েছেন লিওনেল মেসি। জাভি হার্নান্দেজের ৭৬৭ ম্যাচের রেকর্ড ছাপিয়ে ৭৬৮তম ম্যাচটি খেলেছেন মেসি। দুই গোল ও এক এসিস্টের মাধ্যমে নিজের রেকর্ডের ম্যাচটি রাঙিয়েছেন আর্জেন্টাইন সুপারস্টার। অধিনায়কের এমন রঙিন পারফরম্যান্সের এদিন বার্সা পেয়েছে ৬-১ গোলের বিশাল জয়।

রিয়াল সোসিয়েদাদের মাঠ অ্যানোয়েটায় পুরোপুরি আধিপত্য বিস্তার করেই খেলেছে বার্সেলোনা। মেসির রেকর্ডের সঙ্গে উপলক্ষ্য ছিল আরও, দলের কোচ রোনাল্ড কোম্যান, তারকা ফরোয়ার্ড অ্যান্তনিও গ্রিজম্যান এবং ডিফেন্ডার জর্ডি আলবার জন্মদিন ছিল ম্যাচ ডে’টি। এতসব উপলক্ষ্য একত্রিত করেই হয়তো বড় জয়টি তুলে নিয়েছে বার্সেলোনা।

লিগে বাজে শুরুর পর ছন্দে ফেরা বার্সেলোনা এই নিয়ে টানা ১৮ ম্যাচ অপরাজিত রইলো। গত ৫ ডিসেম্বরের পর আর হারেনি তারা। এই সময়ে তাদের জয় ১৫টি, ড্র তিনটি। প্রথম ১০ ম্যাচে মাত্র ১৪ পয়েন্ট পাওয়া দলটি, পরের ১৮ ম্যাচে তুলে নিয়েছে ৪৮ পয়েন্ট। যা বাঁচিয়ে রেখেছে শিরোপা সম্ভাবনা।

ছয় গোলের জয়ের বড় জয়ের পর পুনরায় পয়েন্ট টেবিলের দুই নম্বরে উঠে এসেছে কাতালান ক্লাবটি। লিগের ২৮ ম্যাচ শেষে বার্সেলোনার সংগ্রহ ৬২ পয়েন্ট। তাদের ওপরে থাকা অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদের ঝুলিতে রয়েছে ৬৬ পয়েন্ট। সমান ম্যাচে ৬০ পয়েন্ট নিয়ে তিন নম্বরে রিয়াল মাদ্রিদ। সোসিয়েদাদের অবস্থান পঞ্চম, ৪৫ পয়েন্ট।
গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচটিতে বড় ব্যবধানে জিতলেও, প্রথম গোলের জন্য ৩৭ মিনিট পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হয় বার্সাকে। বার্থডে বয় গ্রিজম্যানের মাধ্যমে ভাঙে গোলের তালা। দারুণ দলীয় আক্রমণের সুফল পায় বার্সা। মেসির পাস ধরে সেটি সামনে বাড়ান আলবা। সেখানে দেম্বেলে গোলের চেষ্টা করলেও ঠেকিয়ে দেন সোসিয়েদাদ গোলরক্ষক। তবে ফিরতি বল জালে জড়াতে ভুল করেননি গ্রিজম্যান।

বিরতিতে যাওয়ার আগে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন সার্জিনো দেস্ত। অধিনায়কের বুদ্ধিদ্বীপ্ত পাস ডি-বক্সের মধ্যে ফাঁকায় পেয়ে যান তিনি। কোনাকুনি শট বল জালে জড়িয়ে লা লিগায় নিজের প্রথম গোলের দেখা পান যুক্তরাষ্ট্রের এই তরুণ। পরে ৫৩ মিনিটে নিজের দ্বিতীয় গোলটিও করেন তিনি।

দেস্তের দ্বিতীয় গোলের পর দলের হালিপূরণের মাধ্যমে স্কোরশিটে নাম তোলেন মেসি। মাঝমাঠ থেকে সার্জিও বুসকেটস উঁচু করে বল এগিয়ে দেন মেসির উদ্দেশ্যে। বাম পায়ের আলতো টোকায় লিগে নিজের ২২তম গোলটি করেন মেসি। পরে ২৩তম গোলের দেখা পান ৮৯ মিনিটে গিয়ে।


শেয়ার করে সকল কে জানিয়ে দিনঃ