সুবীর নন্দীকে বাঁচাতে রক্ত প্রয়োজন

0
33
শেয়ার করে সকল কে জানিয়ে দিনঃ

ক্রাইম অনুসন্ধান ডেস্ক: একুশে পদকপ্রাপ্ত দেশবরেণ্য কণ্ঠশিল্পী সুবীর নন্দী বেশ কিছুদিন থেকেই অসুস্থ হয়ে সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে (সিএমএইচ) ভর্তি আছেন। চিকিৎসকরা তাকে লাইফ সাপোর্টে রেখেছেন। এই শিল্পীকে বাঁচাতে জরুরী ভিত্তিতে রক্ত লাগবে বলে জানিয়েছেন সুবীর নন্দীর মেয়ে মৌ।

আজ শনিবার মৌ বলেন, ‘বাবার জন্য জরুরী ভিত্তিতে এ পজেটিভ রক্তের প্রয়োজন। অনুগ্রহ করে কেউ রক্ত দিতে চাইলে আমার সঙ্গে যোগাযোগ করুন।’ মৌ তার ফোন নাম্বার দিয়ে দিয়েছেন- 01303292915

জনপ্রিয় কণ্ঠশিল্পী কনক চাঁপা ও মৌ এর এই পোস্ট শেয়ার করে সবাইকে এগিয়ে আসার অনুরোধ জানিয়েছেন।

দীর্ঘদিন ধরে কিডনির অসুখে ভুগছিলেন সুবীর নন্দী। তার হার্টেও সমস্যা রয়েছে। সিএমএইচের চিকিৎসক ব্রিগেডিয়ার তৌফিকের তত্ত্বাবধানে রয়েছেন তিনি। পহেলা বৈশাখের রাতে (১৪ এপ্রিল) সিলেট থেকে ঢাকায় ফেরার পথে ট্রেনে হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়েন একুশে পদকে ভূষিত সংগীতশিল্পী সুবীর নন্দী। এ সময় তার সঙ্গে ছিলেন স্ত্রী ও কন্যা। রাতেই তাকে রাজধানীর সিএমএইচে নেওয়া হয়।

এদিকে ১৯ এপ্রিল সন্ধ্যায় প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন গণভবনে সুবীর নন্দীর চিকিৎসার বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছেন সংগীত শিল্পী কুমার বিশ্বজিৎ, তপন চৌধুরী, রফিকুল আলম এবং ডা. সামন্ত লাল সেন। তারা সুবীর নন্দীর চিকিৎসা সম্পর্কে তাকে অবহিত করেন।

এ সময় প্রধানমন্ত্রী শিল্পীর মেডিকেলের সব কাগজপত্র সিঙ্গাপুরে পাঠানোর জন্য এবং সেখানকার বিশেষজ্ঞদের মতামত নেয়ার জন্য ডা. সামন্ত লাল সেনকে নির্দেশনা দেন। সে অনুযায়ী ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে। শেখ হাসিনা তাদেরকে জানান, এর আগে ১৯৯৮ সালেও সুবীর নন্দীকে চিকিৎসার জন্য দুইবার সব রকমের সহযোগিতা দিয়েছিলেন তিনি।

নন্দিত কণ্ঠশিল্পী সুবীর নন্দী ৪০ বছরের দীর্ঘ ক্যারিয়ারে গেয়েছেন আড়াই হাজারেরও বেশি গান। বেতার থেকে টেলিভিশন, তারপর চলচ্চিত্রেও উপহার দিয়েছেন অসংখ্য জনপ্রিয় গান। ১৯৮১ সালে তার প্রথম একক অ্যালবাম ‘সুবীর নন্দীর গান’ ডিসকো রেকর্ডিংয়ের ব্যানারে বাজারে আসে। তবে চলচ্চিত্রে তিনি প্রথম গান করেন ১৯৭৬ সালে আব্দুস সামাদ পরিচালিত ‘সূর্যগ্রহণ’ চলচ্চিত্রে।


শেয়ার করে সকল কে জানিয়ে দিনঃ