সরাইলে বিদ্যালয় ভবন সম্প্রসারণে কোটি টাকার অনিয়মের অভিযোগ

0
125
শেয়ার করে সকল কে জানিয়ে দিনঃ

আরিফুল ইসলাম সুমন, (ব্রাহ্মনবাড়িয়া) প্রতিনিধি : এক কোটি দুই লক্ষ ৫২ হাজার ৩৫৬ টাকা ব্যয়ে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সরাইল পাইলট বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ে পাকা ভবন সম্প্রসারণ কাজের দ্বিতল ভবন নির্মাণে চরম অনিয়মের অভিযোগ তুলেছেন খোদ বিদ্যালয়ের ব্যবস্থাপনা পর্ষদের তিন সদস্য গাজী আবদুর রাজ্জাক ও আমিনুল ইসলাম শেলভী এবং মোঃ মাহফুজ মিয়া।

এদিকে এ কাজে অনিয়ম ও বাধার মধ্যেই আজ বৃহস্পতিবার নির্মাণকারী ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান “মেসার্স নাভাদিয়া তালুকদার এন্টারপ্রাইজ” এর লোকেরা ভবনের ছাদ ঢালাই কাজ সম্পন্ন করেন।

অভিযোগকারীদের দাবি, ভবনের কাজ দরপত্র অনুযায়ী করা হচ্ছে না, যা করা হচ্ছে সেখানে তা স্বেচ্ছাচারিতার বর্হি:প্রকাশ। ছাদে প্রয়োজনের তুলনায় রড কম দেওয়া হয়েছে। নিম্নমানের ইটের খোয়া, বালু, সিমেন্ট ও সিলেকশন ব্যবহার করা হয়েছে। মানুষ গড়ার মূল ভিত্তি বিদ্যালয়ই যদি এভাবে অনৈতিকতার মাঝে দিয়ে ছায়া সৃষ্টিকারী শীতল ছাদে পূর্নতা পায় তাহলে সেখানে থেকে কিভাবে দেশ ও জাতি পাবে যোগ্য মানুষ। প্রশ্ন এলাকাবাসি সবারই।

এর আগে সঠিকভাবে কাজ করার দাবি করা হলে, ঠিকাদার গত কয়েকদিন যাবত ভবনের ছাদ ঢালাই কাজ বন্ধ রাখেন। পরবর্তীতে স্থানীয় প্রভাবশালী মহল, প্রশাসন ও বিদ্যালয়ের অসাধু ব্যক্তিদের সহ সংশ্লিষ্ট প্রকৌশলীকে অনৈতিকপন্থায় ম্যানেজ করে ঠিকাদার ভবনের ছাদ ঢালাই কাজ শুরু করেছে।

নেপথ্যে কে বা কারা এর মদদ দিচ্ছে এই নিয়ে গঞ্জন চললেও মুখ ফুটে কেউ বলতে সাহস পাচ্ছে না বলেও একাধিক সূত্রে জানা গেছে।

অপরদিকে এ কাজের সংশ্লিষ্ট ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের মোঃ মহিন মিয়া ও প্রকৌশলী বিশ্বজিত ভূহন দাবি করেন, নিয়মনীতি অনুসরণ করেই এ ভবনের কাজ করা হচ্ছে। এ কাজে কোনো অনিয়ম হচ্ছে না। তারা না বুঝে এসব অনিয়ম তুলেছেন।


শেয়ার করে সকল কে জানিয়ে দিনঃ