শ্রীলঙ্কা থেকে ফেরত ১১ শ্রমিকের ক্রিমিনাল রেকর্ড নেই

0
18
শেয়ার করে সকল কে জানিয়ে দিনঃ

ক্রাইম অনুসন্ধান ডেস্ক: শ্রীলঙ্কায় হামলার সঙ্গে দেশটি থেকে ফেরত আসা ১১ বাংলাদেশির সংশ্লিষ্টতা মেলেনি বলে জানিয়েছেন সিটিটিসি প্রধান মনিরুল ইসলাম। শনিবার (২৭ এপ্রিল) রাজধানীর মিন্টু রোডে নিজের কার্যালয়ে তিনি এসব কথা বলেন।

কাউন্টার টেরোরিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম (সিটিটিসি) ইউনিটের প্রধান বলেছেন, শ্রীলঙ্কা থেকে ফেরত আসা ১১ বাংলাদেশি শ্রমিকের কারও বিষয়ে এখন পর্যন্ত কোনও ক্রিমিনাল রেকর্ড পাওয়া যায়নি। তবে সে বিষয়ে খোঁজ খবর নেওয়া হচ্ছে। এখন পর্যন্ত আমরা জেনেছি এই হামলা ও ফ্যাক্টরির মালিকের সঙ্গে তাদের কোনও সংশ্লিষ্টতা পাওয়া যায়নি। তবে এখনও জিজ্ঞাসাবাদ চলছে। কোনও সংশ্লিষ্টতা না পেলে তাদের বিরুদ্ধে কোনও আইনি ব্যবস্থা নেওয়ার সুযোগ নেই। এখন পর্যন্ত তারা হামলার সম্পর্কেও কোনও তথ্য দিতে পারেনি।

মনিরুল বলেন, তারা সেখানে ইব্রাহিম ইনসাফ আহমেদের কলসাস মেটাল নামে একটি পিতলের কারখানায় পিতলের তৈজসপত্র তৈরির কাজ করতো। তাদের মধ্যে বেশিরভাগ টাঙ্গাইলের বসবাসকারী। তারা মূলত টুরিস্ট ভিসায় সেখানে গিয়েছিল। তাদের কোনও ওয়ার্ক পারমিট ছিল না। অনেকের আবার ভিসার মেয়াদও ছিল না। হামলার ঘটনায় ওই ফ্যাক্টরির মালিক নিহত হয়েছেন। শ্রীলঙ্কার কর্তৃপক্ষ তাদের এম্বাসির মাধ্যমে বাংলাদেশে ফেরত পাঠিয়েছে। সেখানে অন্যান্য দেশের শ্রমিকরা ছিল। তাদেরও ফেরত পাঠানো হয়েছে।

তিনি বলেন, আমরা এই ১১ জনকে জিজ্ঞাসাবাদ করছি। যে সন্ত্রাসী মারা গেছে আমরা তার সম্পর্কে এবং তার আত্মীয়দের সম্পর্কে জানার চেষ্টা করছি। এখন পর্যন্ত জিজ্ঞাসাবাদে তারা কিছুই জানাতে পারেনি। তারা মালিককে দুই-চারবার দূর থেকে দেখেছে। তবে মালিকের সঙ্গে তাদের যোগাযোগ করার কোনও সুযোগ হয়নি। সাধারণ লেবারের মতোই তারা ছিল।

সিটিটিসি প্রধান বলেন, সারা বিশ্ব এখন ঝুঁকিতে রয়েছে। দক্ষিণ এশিয়া ঝুঁকিতে রয়েছে, আমরাও ঝুঁকিতে আছি। তবে বৈশ্বিক ঝুঁকির কারণে আমাদের দেশ ঝুঁকিতে থাকলেও কোনও হামলার আশঙ্কা নেই। আমাদের দেশে কোনও হুমকি বা হামলার কোনও তথ্য এখন পর্যন্ত আমাদের কাছে নেই।

প্রসঙ্গত, গত রোববার শ্রীলঙ্কায় ‘ইস্টার সানডে’র দিন জঙ্গি হামলায় ২৫৩ জন নিহত হয়েছেন। এর মধ্যে জায়ান চৌধুরী নামে এক বাংলাদেশি শিশুও রয়েছে। আওয়ামী লীগ নেতা শেখ সেলিমের নাতি জায়ান চৌধুরী সাংরি-লা হোটেলে বিস্ফোরণে নিহত হয়। আহত হয়ে জায়ানের বাবা মশিউর হক চৌধুরী প্রিন্স বর্তমানে কলম্বোতে চিকিৎসাধীন।

শ্রীলঙ্কায় বোমা হামলাকারী অনেকেই আইএস ফেরত জঙ্গি বলে সন্দেহ করছেন দেশটির আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।


শেয়ার করে সকল কে জানিয়ে দিনঃ