বড়শিতে ধরা পড়ল ৩৭ কেজির ব্ল্যাক কার্প

0
10

আলোর যুগ প্রতিনিধিঃ কুমিল্লা নগরীর প্রাচীন দিঘি ধর্মসাগরে এক ব্যবসায়ীর বড়শিতে এবার ধরা পড়েছে ৩৭ কেজি ওজনের একটি ব্ল্যাক কার্প মাছ। ব্যবসায়ীর নাম জাহিদুল্লাহ রিপন। মঙ্গলবার দুপুরে জাহিদুল্লাহ রিপন জানিয়েছেন, সোমবার (১০ জানুয়ারি) রাত ১২টার দিকে তাঁর বড়শিতে মাছটি ধরা পড়ে। ধর্মসাগরে বিশাল মাছ ধরা পড়ার খবর নগরীতে ছড়িয়ে পড়লে মাছটি দেখতে ভিড় জমান উৎসুক জনতা।

এর আগে গত ২ ডিসেম্বর রাতে ওই ব্যবসায়ীর বড়শিতেই ৪৩ কেজি ৬০০ গ্রাম ওজনের আরেকটি ব্ল্যাক কার্প মাছ ধরা পড়েছিল। ওইদিন রাতেই খবর পেয়ে মাছটি দেখতে আসেন কুমিল্লা সদর আসনের সংসদ সদস্য আ ক ম বাহাউদ্দিন বাহার। পরে মাছটি তাঁকে উপহার দেওয়া হয়।

ব্যবসায়ী জাহিদুল্লাহ রিপন জানান, বর্তমানে কুমিল্লা ধর্মসাগর দিঘিটি তাঁরা ৩০ জন অংশীদার মিলে লিজ নিয়ে মাছ চাষ করছেন। প্রায়ই দিনই তাদের সদস্যরা বড়শিতে মাছ ধরেন। অন্যান্য সময়ের মতো সোমবার সন্ধ্যায়ও ধর্মসাগরের পশ্চিমপাড়ে শখের বসে ডিম-পুঁটি দিয়ে বড়শি ফেলেন তিনি। রাত ১২টার দিকে হঠাৎ তাঁর বড়শিতে মাছটি ধরা পড়ে। পরে পানি থেকে তুলে দেখতে পান বিশাল আকৃতির একটি ব্ল্যাক কার্প। মাছটি পাড়ে তুলতে সময় লেগেছিলো প্রায় ৩০ মিনিট। মঙ্গলবার (১১ জানুয়ারি) সকালে মাছটির ওজন করলে ৩৭ কেজি হয়।

রিপন বলেন, গত ৬ বছরে এই দিঘিতে অনেক বড় বড় মাছ হয়েছে। তার মধ্যে এটি দ্বিতীয়। আমরা ইজারাদাররা মিলে মাছটি ভাগ করে নিয়েছি।কুমিল্লা জেলা মৎস্য কর্মকর্তা শরিফ উদ্দিন বলেন, ব্ল্যাক কার্প মাছ আমাদের দেশের নদী ও পুকুরে বেশি হয়। বিশেষ করে যেসব পুকুর-দিঘিতে শামুক ও ঝিনুক বেশি থাকে সেখানে ব্ল্যাক কার্প মাছ বেশি বড় হয়ে থাকে। ধর্মসাগর দিঘিতে প্রচুর শামুক ঝিনুক থাকায় এখানে ব্ল্যাক কার্প মাছ বেশি হয় বলে জানান তিনি।