বোনকে ধর্ষণে বাধা দেওয়ায় দুই কিশোরী বোনকেই ধর্ষন

0
49
শেয়ার করে সকল কে জানিয়ে দিনঃ


আলোর যুগ স্টাফ রিপোর্টার, ধামরাই (ঢাকা)

ঢাকার ধামরাইয়ে নিজ বাড়িতে ধর্ষণের শিকার হয়েছে এক কিশোরী। ধর্ষণে বাধা দেওয়ায় ছোটবোনকেও ধর্ষণ করেছে বখাটেরা।গত বুধবার সকাল ১০টার দিকে ধর্ষণের ঘটনাটি ঘটেছে উপজেলার পাড়াগ্রাম বংশী নদীর পশ্চিম উপকূলে। ফাঁকা বাড়ি পেয়ে এ ধর্ষণের ঘটনা ঘটায় এলাকার চিহ্নিত দুই বখাটে তরুণ।

এ ঘটনায় ওই ধর্ষক ও ধর্ষকের সহায়তাকারীর বিরুদ্ধে ধামরাই থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে একটি মামলা দায়ের হয়েছে। ভিকটিমের স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য হাসপাতালে ও ২২ ধারার জবানবন্দি রেকর্ডের জন্য আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে বলে নিশ্চিত করেছে ধামরাই থানা পুলিশ।পারিবারিক ও প্রতিবেশী সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার পাড়াগ্রাম বংশী নদীর পশ্চিম উপকূলের ওই বাড়ির সবাই বাড়ির বাইরে চলে যান। বাড়িতে রেখে যান ১৬ ও ১৩ বছরের দুই মেয়েকে। তারা বাড়ির উঠোনে খেলা করছিল।

এ সময় সাদ্দাত ওরফে সাদ্দাম ও পরবেশ ওরফে পারভেজ নামে এলাকার চিহ্নিত দুই বখাটে ওই বাড়িতে ঢুকে পানি পান করার অজুহাতে বড়বোনকে ঘরের ভেতরে ডেকে নেয়। এরপর তার ইচ্ছার বিরুদ্ধে জোরপূর্বক ধর্ষণ করতে থাকে পারভেজ আর তাকে ধরে রাখে সাদ্দাম। বড়বোনের গোঙানির শব্দ শুনে ছোটবোন দৌড়ে গিয়ে বাধা দেয়। এতে ক্ষিপ্ত সাদ্দাম ওই ছোটবোনকেও বড়বোনের পাশেই জোররপূর্বক ধর্ষণ করে। তাদের ডাকচিৎকারে আশপাশের লোকজন এগিয়ে এলে ধর্ষকরা দৌড়ে পালিয়ে যায়। এলাকাবাসী তাদের উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে প্রাথমিক চিকিৎসা প্রদান করে।

খবর পেয়ে বাড়ির লোকজন বাড়িতে এসে ঘটনা সম্পর্কে অবগত হন। এরপর থানায় গিয়ে এ ব্যাপারে ওই ধর্ষক ও ধর্ষণের চেষ্টাকারীর বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন। এ বিষয়ে ধামরাই থানার ওসি আতিকুর রহমান আতিক বলেন, আশা করি খুব কম সময়ের মধ্যেই ধর্ষকদের গ্রেফতার করা হবে।


শেয়ার করে সকল কে জানিয়ে দিনঃ