বাংলাদেশ-শ্রীলঙ্কা প্রথম টেস্ট ড্র

0
8
শেয়ার করে সকল কে জানিয়ে দিনঃ


আলোর যুগ খেলা: ক্যান্ডির পাল্লেকেলেতে সিরিজের প্রথম টেস্টে দাপট দেখালেন ব্যাটসম্যানরা। দুই দলের ব্যাটসম্যানরা দারুণ প্রদর্শনী করলেন। ম্যাচ শেষে বোঝা গেলো, এটা ছিল বোলারদের বধ্যভূমি। কারণ প্রথম ইনিংসে বাংলাদেশ ৭ উইকেট হারয়ে ৫৪১ রানে ইনিংস ঘোষণা করার জবাব দিতে নেমে শ্রীলঙ্কাও ৮ উইকেট হারিয়ে ইনিংস ঘোষণা করে ৬৪৮ রানে। ১০৭ রানের লিড। দ্বিতীয় সেশন শেষে চা-পানের বিরতি চলকালীন বৃষ্টি শুরু হয়। দীর্ঘ সময় বৃষ্টির কারণে খেলা বন্ধও ছিল। তবে সেখান থেকে আর মাঠে ফেরা হয়নি ক্রিকেটারদের। ড্র মেনে নিয়েছেন দু’দলের অধিনায়কেরা।

বাংলাদেশ দ্বিতীয় ইনিংসে ৩৩ ওভার শেষে ২ উইকেট হারিয়ে ১০০ রান সংগ্রহ করেছিল। ৭৪ রানে অপরাজিত ছিলেন তামিম। প্রথম ইনিংসে ৯০ রানে আউট হওয়া এই ওপেনার দ্বিতীয় ইনিংসেও ঝড়ো ব্যাট করেন। তিনি ৯৮ বলে ১০টি চার ও ৩টি ছক্কা হাঁকান। ২৩ রান নিয়ে মাঠ ছাড়েন অধিনায়ক মুমিনুল হক। শ্রীলঙ্কার চেয়ে ৭ রানে পিছিয়ে ছিল বাংলাদেশ।

বাংলাদেশের দ্বিতীয় ইনিংসে দলীয় রান আর তামিম ইকবালের ব্যক্তিগত সংগ্রহ যেন সমান তালে এগোচ্ছিল। একটা সময় টাইগারদের ৫২ রানেই তামিম তুলে নিয়েছিলেন হাফসেঞ্চুরি। পরে অবশ্য কিছুটা ধীর ব্যাট করেছেন।

এর আগে ওপেনার সাইফ হাসান দুই ইনিংসেই ব্যর্থতার ষোলোকলা পূর্ণ করার পর এক ওভার বাদেই শূন্য রানে বিদায় নিলেন প্রথম ইনিংসের সেঞ্চুরিয়ান নাজমুল হোসেন শান্ত। অন্য প্রান্তে প্রথম ইনিংসের মতোই ঝড়ো ব্যাটিং করে ফিফটি তুলে নিয়েছেন তামিম ইকবাল।

লঙ্কান পেসার সুরঙ্গা লাকমলের অফসাইডের বাইরের বল দেখে লোভ সামলাতে পারেননি শান্ত। কিন্তু বল তার ব্যাটের কানায় লেগে স্ট্যাম্প ভেঙে দেয়। তবে অন্য প্রান্তে ঝড় থামাননি তামিম। ৫৬ বলে ৭ চার ও ২ ছক্কায় তুলে নিয়েছেন ক্যারিয়ারের ৩০তম টেস্ট ফিফটি।

এর আগে ৮ উইকেটে ৬৪৮ রানে নিজেদের ইনিংস ঘোষণা করে শ্রীলঙ্কা। লিড দাঁড়ায় ১০৭ রানে।

জবাবে ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই ধাক্কা খায় বাংলাদেশ। প্রথম ইনিংসে শূন্য রানে আউট হওয়া ওপেনার সাইফ হাসান দ্বিতীয় ইনিংসে সুরাঙ্গা লাকমলের বলে ব্যক্তিগত এক রান করে ফেরেন।

রোববার (২৫ এপ্রিল) ক্যান্ডির পাল্লেকেলের ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট স্টেডিয়ামে দুই ম্যাচ টেস্ট সিরিজের প্রথমটির পঞ্চম দিন মাঠে নামে শ্রীলঙ্কা-বাংলাদেশ।

তাসকিন ঝড়ের পর পাথুম নিশাঙ্কাকাকে ১২) লিটন দাশের ক্যাচে ফেরান এবাদত হোসেন। ৩১ রান করা নিরোশান ডিকভেলা রান আউটের শিকার হন। আর ওয়ানিন্দু (৪৩) হারাসাঙ্গাকে বোল্ড করেন তাইজুল ইসলাম।

এর আগে দিনের শুরুতেই দাপট দেখান তাসকিন আহমেদ। সেঞ্চুরিয়ান ধনাঞ্জয়া ডি সিলভাকে বোল্ড করার পর ডাবল সেঞ্চুরিয়ান দিমুথ করুনারত্নেকেও ফেরান এই পেসার।

প্রথম ইনিংসে ব্যাটিংয়ে থাকা লঙ্কান ব্যাটসম্যান ধনাঞ্জয়া ডি সিলভাকে শুরুতেই বোল্ড করে ফিরিয়ে দেন তাসকিন আহমেদ। ২৯১ বলে এই ডানহাতি ২২টি চারের সাহায্যে ১৬৬ রান করেছিলেন। এক ওভার পরেই ক্যারিয়ারের প্রথম ডাবল সেঞ্চুরি করা দিমুথ করুনারত্নেকে নাজমুল হোসেন শান্তর ক্যাচে মাঠ ছাড়া করান এই ডানহাতি। লঙ্কান অধিনায়ক ৪৩৭ বলে ২৬টি চারে ২৪৪ রান করেন। চতুর্থ উইকেট তারা জুটিতে ৩৪৫ রান তুলেছেন।

বাংলাদেশ নিজেদের প্রথম ইনিংসে ৫৪১ রানে ৭ উইকেট হারিয়ে ইনিংস ঘোষণা করেছিল।

আগামী ২৯ জুন একই ভেন্যুতে সিরিজের দ্বিতীয় ও শেষ টেস্ট অনুষ্ঠিত হবে।


শেয়ার করে সকল কে জানিয়ে দিনঃ