নড়াইলের জেলা প্রশাসক আনজুমান আরা

0
53
শেয়ার করে সকল কে জানিয়ে দিনঃ

উজ্জ্বল রায়, নড়াইল প্রতিনিধি: নড়াইলের জেলা প্রশাসক আনজুমান আরা। ফরিদপুর জেলার বোয়ালমারী উপজেলার ময়না ইউনিয়নের বেলজানি গ্রামে এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারের সন্তান। মধুমতি বিধৌত বেলজানির আলো হাওয়ায় শৈশব, কৈশর কাটানো মানুষটি আজ নড়াইলের জেলা প্রশাসক হিসেবে সুনামের সাথে কাজ করে চলেছেন। তাঁর বাবা ছিলেন একজন শিক্ষক,একজন মুক্তিযোদ্ধা। বোয়ালমারী খরসতিতে শিক্ষক হিসেবে কর্মজীবনে তিনি ছিলেন এক আদর্শের আঁধার। এক পর্যায়ে তিনি বোয়ালমারী- ১ আসনের সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। খরসতি চন্দ্রকিশোর উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ছিলেন। ফরিদপুর জেলার বোয়ালমারী উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি,জেলা আওয়ামীলীগের সহ সভাপতি ছিলেন তিনি। ছিলেন ৯০ এর এরশাদ বিরোধী আন্দোলনের রাজপথের নেতা। ১৯৯১ এর সংসদ নির্বাচনে নৌকা প্রতীক নিয়ে লাঙ্গলের প্রার্থী শাহ মোঃ আবু জাফরকে ২২ হাজার ৮৯৩ ভোটের ব্যবধানে পরাজিত করে ফরিদপুর ১ আসনের সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। নির্লোভ ও ত্যাগী যিনি আওয়ামীলীগ সভাপতি শেখ হাসিনার নির্দেশে সংসদ সদস্য থেকে পদত্যাগ করেন। বোয়ালমারীর প্রত্যন্ত গ্রাম খরসতিতে বঙ্গবন্ধুর নামে কলেজ প্রতিষ্ঠা করেন। যেটি পরবর্তীতে সরকার ডিগ্রী কলেজে উন্নীত করে। মরহুম আব্দুর রউফ মিয়া আজো এলাকায় রউফ স্যার নামে সুপরিচিত এবং তাঁর সততা ও দেশপ্রেমের কথা আজো বোয়ালমারীর মানুষ শ্রদ্ধার সাথে স্মরন করে। এ স্বনামধন্য বাবার সুযোগ্য কন্যা আজ আমাদের জেলার অভিভাবক। তিনিও শিক্ষকতা পেশায় ছিলেন কর্মজীবনের প্রথমার্ধে। বোয়ালমারী সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক থাকাকালীন ২১ তম বিসিএস এর মাধ্যমে ২০০৩ সালের ৩১ মে খুলনা বিভাগীয় কমিশনারের কার্যালয়ে সহকারী কমিশনার ও ম্যাজিস্ট্রেট হিসেবে যোগদান করেন। আনজুমান আরা চার বোন ও দুই ভাই।আব্দুল্লাহ আল মামুন বড় ভাই আওয়ামীলীগের কেন্দ্রীয় উপ কমিটির সহ-সম্পাদক। সক্রিয় রাজনীতিতে যুক্ত। ছোট ভাই সুমন ঘ ঝ ও এর অউ। এক বোন খরসতি চন্দ্রশেখর স্কুলের প্রধান শিক্ষক। তার স্বামী মো: রেজাউল হক টিটো সরকারী তিতুমীর কলেজের সহযোগী অধ্যাপক হিসাবে কর্মরত আছেন। ব্যক্তি জীবনে তিনি এক ছেলে ও এক মেয়ের মা। জেলা প্রশাসক তার বর্নাঢ্য কর্মজীবনে বিভিন্ন জেলায় অত্যন্ত সুনামও দক্ষতার সাথে দায়িত্ব পালন করেছেন। সর্বশেষ ২০১৮ সালে ২৩ সেপ্টেম্বর নড়াইলে জেলা প্রশাসক হিসেবে দায়িত্ব ভার গ্রহন করেন। নড়াইলবাসী তার দীর্ঘায়ু ও মঙ্গল কামনা করি।


শেয়ার করে সকল কে জানিয়ে দিনঃ