কলমাকান্দায় গৃহবঁধুকে বালিশ চাপা দিয়ে হত্যা করে স্বামী

0
80
শেয়ার করে সকল কে জানিয়ে দিনঃ

মোঃ রিপন মিয়া, কলমাকান্দা(নেত্রকোণা)প্রতিনিধি: কলমাকান্দায় সিধলী গ্রামের গৃহবধূ দুই সন্তানের জননী পারভিনা আক্তারকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়েছে। প্রাথমিক তদন্তে এ বিষয়টি জানতে পেরেছে পুলিশ।

তবে ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন পাওয়ার পর বিষয়টি পুরোপুরি নিশ্চিত হওয়া যাবে বলে জানান মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ও সিধলী পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ পরিদর্শক মো. শফিকুল ইসলাম ।

শনিবার দুপুরে সাংবাদিকদের এ তথ্য নিশ্চিত করেন কলমাকান্দা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. মাজহারুল করিম ।
এদিকে পারভিনা হত্যার ঘটনায় গত শুক্রবার রাতেই নিহতের ছোট ভাই আবু ইউসুফ বাদী হয়ে স্বামী, শ্বশুর ও শাশুড়িসহ অজ্ঞাত আরও দুই জনকে আসামি করে কলমাকান্দা থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।

এর আগে শুক্রবার সকালে স্বামী শফিকুল ইসলাম (৪৫) ও শ্বশুর তোরাব আলীকে (৭০) তাদের বাড়ি থেকে আটক করে পুলিশ। এ মামলার আরেক আসামী শ্বাশুরি সখিনা (৬০) পলাতক রয়েছেন।

ওসি মো. মাজহারুল করিম জানান, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে গৃহবধূ পারভিনাকে বালিশ দিয়ে চেপে গলাটিপে শ্বাসরোধ করে এ হত্যা করা হয়েছে বলে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন ঘাতক স্বামী শফিকুল ইসলাম। শনিবার দুপুরে আটককৃতদের নেত্রকোণা জেলা বিজ্ঞ আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে বলেও জানান তিনি।

নিহত পারভিনার আরেক ছোট ভাই তরিকুল ইসলাম জানান, শফিকুল ইসলাম ও তার পরিবারের লোকজন প্রতিনিয়ত পারভিনাকে যৌতুকের জন্য নির্যাতন করলে বাবার বাড়ি থেকে সম্প্রতি এক লাখ টাকা এনে দেয় তার স্বামীকে। পরে আবারও টাকার জন্য শুক্রবার ভোরে তার স্বামী পারভিনাকে অতিরিক্ত মারধর করলে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়। পরে ঘটনাস্থল থেকে লাশ উদ্ধার করে সুরতাল শেষে ময়নাতদন্তের জন্য শুক্রবার দুপুরে নেত্রকোণা আধুনিক সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়।


শেয়ার করে সকল কে জানিয়ে দিনঃ