করোনা: ৩ জেলার হাসপাতালে এক দিনে ৫৪ মৃত্যু

0
6

আলোর যুগ প্রতিনিধিঃ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ও এর উপসর্গ নিয়ে এক দিনে তিন জেলার হাসপাতালে ৫৪ জনের মৃত্যু হয়েছে।

শুক্রবার সকালে গত ২৪ ঘণ্টার এতথ্য জানিয়েছে ওই তিন জেলা কর্তৃপক্ষ। রাজশাহী ব্যুরো, কুষ্টিয়া প্রতিনিধি ও ময়মনসিংহ প্রতিনিধির পাঠানো খবর:

রাজশাহী

গত ২৪ ঘন্টায় রাজশাহী মেডিকেল কলেজ (রামেক) হাসপাতালের করোনা ওয়ার্ডে  ১৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। এদের মধ্যে রাজশাহীর ১০ জন, নওগাঁর দুইজন, নাটোরের দুইজন, চাঁপাইনবাবগঞ্জের দুইজন, কুষ্টিয়া একজন  ও সিরাজগঞ্জের একজন রয়েছেন। মৃতদের মধ্যে তিনজন করোনা পজিটিভ, ১৫ জন উপসর্গ নিয়ে মারা যান।

রামেক হাসপাতালের পরিচালক বিগ্রেডিয়ার শামীম ইয়াজদানী জানান, গত ২৪ ঘন্টায় করোনা ওয়ার্ডে নতুন রোগী ভর্তি হয়েছেন ৭৪ জন। এ নিয়ে ৪৫৪ বেডের বিপরীতে মোট ভর্তি রোগী আছেন ৫০১জন।

এর আগেরদিন রাজশাহীর দুটি পিসিআর ল্যাবে রাজশাহী জেলার ৪৯৭টি নমুনা পরীক্ষায় ৮৭ জনের করোনা পজিটিভ আসে। রাজশাহীতে শনাক্তের হার ১৮ দশমিক ১৬শতাংশ।  চাঁপাইনবাবগঞ্জের ৮৩ নমুনা পরীক্ষায় ১৭ জনের পজিটিভ আসে। শনাক্ত হার ২০দশমিক ৪৮শতাংশ।

কুষ্টিয়া

কুষ্টিয়ায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ও এর উপসর্গ নিয়ে এক দিনে ২২ জনের মৃত্যু হয়েছে।

শুক্রবার সকালে গত ২৪ ঘণ্টার এতথ্য দিয়েছে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।

২২ জনের মধ্যে ১২ জন করোনা আক্রান্ত হয়ে আর ১০ জন উপর্সগ নিয়ে মারা গেছেন। গত ২৪ ঘন্টায় ৭৯২ টি নমুনায় ২২০ জনের করোনা  শনাক্ত হয়েছে। শানাক্তের হার ২৭.৭৭ শতাংশ। এই মুহূর্তে হাসপাতালে রোগী ভর্তি আছে করোনা পজিটিভ নিয়ে ১৮৭ জন আর উপর্সগ নিয়ে ৯৩ জন।

কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার তাপস কুমার সরকার এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

এদিকে ২৪ ঘন্টায় কুষ্টিয়ায় সুস্থ হয়েছেন ১১৮ জন। জেলায় ধীরে ধীরে শনাক্ত কমলেও মৃত্যু কমছে না৷যারা হাসপাতালে ভর্তি হচ্ছেন তাদের প্রায় সকলেরই অক্সিজেন প্রয়োজন হচ্ছে।

হাসপাতালে ভর্তি রোগীর বেশির ভাগের অক্সিজেন লেভেল ৫০ শতাংশের নিচে। তবে হাসপাতালে অক্সিজেনের সরবরাহ আগের চেয়ে বেড়েছে। শয্যা ফাঁকা না থাকায় বারান্দায় ঠাঁই হয়েছে অনেক রোগীর। বেশির ভাগ ওষুধ বাইরে থেকে কিনতে হচ্ছে রোগীর স্বজনদের।

ময়মনসিংহ

ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের করোনা ইউনিটে গত ২৪ ঘন্টায় ১৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। এদের মধ্যে ৬ জন করোনা শনাক্ত হয়ে এবং ৮ জন করোনার উপসর্গ নিয়ে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের করোনা ইউনিটের ফোকাল পার্সন ডা. মহিউদ্দিন খান মুন। তিনি আরও বলেন, শুক্রবার সকাল পর্যন্ত আইসিইউতে ২০ জনসহ মোট রোগী ভর্তি আছেন ৩৮৬ জন। নতুন ভর্তি হয়েছেন ৫১ জন,  সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ৪৪ জন।

এদিকে বুধবার ময়মনসিংহ জেলায় ৬৬৯ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়। এর মধ্যে ১৮৭ জনের শরীরে সংক্রমণ শনাক্ত হয়। সংক্রমণের হার ২৭ দশমিক ৯৫ শতাংশ বলে জানিয়েছেন জেলা সিভিল সার্জন ডা. মো. নজরুল ইসলাম।